আদা < উৎপাদন পদ্ধতি

আদা সংগ্রহ ও করণীয়

আদা সংগ্রহঃ মাঘ-ফাল্গুন মাস। কন্দ রোপনের ৯-১০ মাস পর পাতা শুকিয়ে গেলে সংগ্রহ করতে হয়। সাধারণত ডিসেম্বর-জানুয়ারি মাসে কোদাল দিয়ে মাটি আলাদা করে আদা উত্তোলন করা হয়। ফসল সংগ্রহের পর মাটি পরিষ্কার করে আদা সংরক্ষণ করা হয়। বিঘা প্রতি ফলন গড়ে ৩.৯৬-৪.৬২ টন। সংরক্ষণঃ আদা উঠানোর পর বড় আকারের বীজ রাইজোম ছায়াযুক্ত স্থানে বা ঘরের [...]

আদা সংগ্রহ ও করণীয়২০২১-০২-১৫T২৩:১৯:০৪+০৬:০০

আদা চাষে অন্যান্য পরিচর্যা

পরিচর্যাঃ রোপনের ৩-৪ সপ্তাহের মধ্যে আদার গাছ বের হবে। রোপনের ৫-৬ সপ্তাহ পর আগাছা পরিষ্কার করতে হবে। আদার বৃদ্ধি ও পানি নিষ্কাশনের জন্য দুই সারির মাঝের মাটি ২-৩ বারে তুলে দিতে হবে। অনেক সময় মালচিং করলে ভাল হয়। জমিতে ছায়াদানকারী হিসেবে ধৈঞ্চা, বকফুল লাগানো যেতে পারে। সমস্ত গাছ ১.৫-২.০ মিটার লম্বা হলে আগা কেটে দিয়ে [...]

আদা চাষে অন্যান্য পরিচর্যা২০২১-০২-১৫T২১:২১:৫৩+০৬:০০

আদা চাষে সার ব্যবস্থাপনা

কৃষি পরিবেশ অঞ্চলের ওপর সারের পরিমান নির্ভর করে। বেশি ফলন পেতে হলে আদার জমিতে প্রচুর পরিমাণ জৈব সার প্রয়োগ করতে হবে। আদার জন্য প্রতি শতাংশে জৈব ও রাসায়নিক সার নিচে উল্লিখিত হারে প্রয়োগ করতে হবেঃ সারের নাম সারের পরিমাণ মন্তব্য কম্পোস্ট ২০-৪০ কেজি অধিকতর তথ্য জানতে এখানে ক্লিক করুন। অঞ্চল বা মৃত্তিকা ভেদে সারের মাত্রা [...]

আদা চাষে সার ব্যবস্থাপনা২০২১-০২-১৫T২৩:১৯:১৮+০৬:০০

আদার বীজ বপন পরিচর্যা

বীজ বপনের সময়ঃ এপ্রিল থেকে মে মাসে আদা বপন করা যায়। তবে এপ্রিলের শুরুতে আদা লাগালে ভাল ফলন পাওয়া যায়। স্পেসিং/দূরত্বঃ সারি সারি=২০ ইঞ্চি, কন্দ থেকে কন্দ=১০ ইঞ্চি বীজ হার (বিঘা প্রতি): আদার ফলন অনেকাংশে বীজের আকারের ওপর নির্ভর করে। বীজ আদার আকার বড় হলে ফলন বেশি হয়। ৩৫-৪০ গ্রাম আকারের বীজ রোপণ করলে আদার ফলন [...]

আদার বীজ বপন পরিচর্যা২০২১-০২-১৫T২৩:১৯:৩৪+০৬:০০

আদার জাত পরিচিতি

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট উদ্ভাবিত আদার জাতের বিবরণঃ জাতের নাম ক্লিক করুন বপন সময় জীবনকাল ফলন (বিঘা প্রতি) বারি আদা-১ এপ্রিল থেকে মে ৩০০-৩১০ দিন ৩.৭৩-৪.০ টন প্রতি গোছায় টিলারের সংখ্যা ১০-১২ টি। প্রতি গোছায় রাইজোমের ওজন ৪০০-৪৫০ গ্রাম। প্রচলিত জাতের চেয়ে ফলন বেশি। স্থানীয় জাতের মতো এটি সহজে সংরক্ষণ করা যায়। দেশের সব এলাকাতেই চাষ করা [...]

আদার জাত পরিচিতি২০২১-০২-১৫T২৩:১৯:৪৫+০৬:০০
Go to Top