করলা < উৎপাদন পদ্ধতি

করলা সংগ্রহ ও করণীয়

সংগ্রহঃ চারা রোপলে ৪০-৪৫ দিন পর থেকে উচ্ছে গাছে ফল আহরন শুরু হয়, তবে করলা গাছে দুইমাস লেগে যায়। স্ত্রী ফুলের পরাগায়নের ১৫-২০ দিনের মধ্যে খাওয়ার উপযোগি হয়। ফল আহরন শুরু হলেতা দুমাস পর্যন্ত চলে। ফলনঃ উন্নত পদ্ধতিতে চাষ করলে উচ্ছের ফলন প্রতি শতকে ৩০-৪০ কেজি অথবা প্রতি বিঘায়০.৯৩ -১.৩৩ টন। করলার ফলন প্রতি শতকে [...]

করলা সংগ্রহ ও করণীয়২০২১-০২-১৫T২২:২৭:৩৩+০৬:০০

করলা চাষে সার ব্যবস্থাপনা

করলার ভাল ফলনের জন্য শতাংশ (ডেসিমল) প্রতি নিম্নোক্ত হারে সার প্রয়োগ করতে  হবে - সারের নাম সারের পরিমাণ মন্তব্য গোবর ৪০ কেজি অধিকতর তথ্যের জন্য এখানে ক্লিক করুন। এলাকা বা মৃত্তিকাভেদে সারের পরিমাণে কম-বেশী হতে পারে। ইউরিয়া ০.৬১ কেজি টিএসপি ০.৭১ কেজি এমওপি/পটাশ ০.৬১ কেজি জিপসাম ০.৪ কেজি দস্তা ০.০৪ কেজি বোরণ ০.০৫ কেজি   [...]

করলা চাষে সার ব্যবস্থাপনা২০২১-০২-১৫T২২:২৭:৪১+০৬:০০

করলার বপন/রোপণ পদ্ধতি

করলার রস বহুমূত্র, চর্মরোগ, হাপানী ও বাত রোগের চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হয়। এছাড়াও ক্যালসিয়াম, লৌহ ও ভিটামিন সি রয়েছে। উষ্ণ ও আর্দ্র আবহাওয়ায় ভাল জন্মে। জলাবদ্ধতা সহ্য করতে পারে না। সারাদিন রোদ পড়লে ভাল ফলন পাওয়া যায়। জৈব সার সমৃদ্ধ দোআঁশ বা বেলে দোআঁশ মাটিতে ভাল হয়। বীজ বপনের সময়ঃ বছরের যে কোন সময় চাষ [...]

করলার বপন/রোপণ পদ্ধতি২০২১-০২-১৫T২২:২৭:৫৭+০৬:০০

করলা চাষে অন্যান্য পরিচর্যা

আগাছা পরিষ্কার ও বাউনি দেয়াঃ চারা লাগানো থেকে ফল সংগ্রহ পর্যন্ত আগাছা পরিষ্কার রাখতে হবে। জমিতে খড় বিছিয়ে দেয়া যায় আবার বাউনি দেয়া যায়। বাউনি দিলে খড়ের তুলনায় ২৫-৩০% ফলন বৃদ্ধি পায়। গাছের গোড়ার অতিরিক্ত ডাল কেটে দেয়াঃ গাছের গোড়ার দিকের ছোট ছোট ডগা (শোষক শাখা) কেটে দিলে ফলন ভাল হয় ও রোগ-পোকার আক্রমণ কম [...]

করলা চাষে অন্যান্য পরিচর্যা২০২১-০২-১৫T২২:২৮:০৯+০৬:০০

করলার জাত পরিচিতি

ছবিতে ক্লিক করুন জীবনকাল বিঘা প্রতি ফলন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) উদ্ভাবিত ঝিঙ্গার জাত সমূহ বারি করলা -১ চারা রোপণের ৫৫-৬০দিনের মধ্যে ১ম ফল তোলা যায়।ফেব্রু-মার্চ ৮৫-৯৫ মণ (প্রতি ফলের গড় ওজন ১০০ গ্রাম এবং গাছ প্রতি ফলের সংখ্যা ৩৫-৪০ টি। ফল গাঢ় সবুজ রংয়ের। ফল লম্বায় ৬-৭ ইঞ্চি এবং ব্যাস প্রায় ২ ইঞ্চি।, [...]

করলার জাত পরিচিতি২০২১-০২-১৫T২২:২৮:১৮+০৬:০০
Go to Top