জীবনকাল : বীজ বপনের ৯০ থেকে ১০০ দিনের মধ্যে ফসল সংগ্রহ করা যেতে পারে।

বীজবপনের সময় : মধ্য সেপ্টেম্বর থেকে মধ্য ডিসেম্বর সময়ের মধ্যে গাজরের বীজ বপন করা যায়। ভালো বীজে শতকরা ৮৫ থেকে ৯০ ভাগ অঙ্কুরোদগম হয়।

বীজের পরিমাণ : সরাসরি বীজ বুনে গাজরের চাষ করা হয়। গাজর চাষের জন্য প্রতি একরে ২ কেজি বা প্রতি শতকে ২০ গ্রাম বীজের প্রয়োজন হয়।

জমি তৈরিঃ

১. গাজরের শেকড় মাটির বেশ ভেতরে প্রবেশ করে; তাই জমি ৮ থেকে ১০ ইঞ্চি গভীর করে চাষ দিতে হবে।
২. ৪ থেকে ৫টি চাষ ও মই দিয়ে জমি ভালোভাবে তৈরি করতে হবে।
৩. জমির ঢেলা ভেঙ্গে মাটি ঝরঝরে করতে হবে।
৪. জমিতে ৮-১০ ইঞ্চি দূরে দূরে সারি তৈরি করতে হবে।

বপন পদ্ধতি :

গাজরের বীজ বপনের আগে বীজ একদিন ভিজিয়ে রাখতে হবে। সমতল জমিতে ২০ থেকে ২৫ সেন্টিমিটার ব্যবধানে সারি তৈরি করে সারিতে বীজ বুনতে হয়। বীজ খুব ছোট বলে ছাই বা গুঁড়া মাটির সঙ্গে মিশিয়ে বপন করা উচিত। বীজ গজানোর পর চারা একটু শক্ত হলেই পর্যায়ক্রমে চারা পাতলা করে দিতে হয়, যেন শেষ পর্যন্ত চারা থেকে চারার দূরত্ব ৬ থেকে ৭ সেন্টিমিটার হয়। বীজ বপনের আগে জমিতে চওড়া নালাসহ বেড তৈরি করে দিলে পানি নিষ্কাশন, সেচ ও অন্তর্বর্তী পরিচর্যার সুবিধা হয় এবং ফলনও বেশি পাওয়া যায়। 

তথ্যসূত্রঃ www.alokitobangladesh.com এবং https://baisc.wordpress.com

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২১