বপন সময়ঃ

বাংলাদেশে কেবল রবি মৌসুমে, বিশেষভাবে নভেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত লেটুসের চাষ করা সম্ভব। তাপমাত্রা অধিক প্রখর হলে পাতা পুড়ে যায়।

বীজ হারঃ

বিঘা প্রতি ৩০ গ্রাম বীজ প্রয়োজন। উক্ত পরিমাণ বীজ ১০ ফুট × ৩.৩ ফুট আকারের তিনটির বেশি হাপোরে বুনতে হবে।

চারা উৎপাদন ও বয়সঃ

বীজতলায় ২ ইঞ্চি × ২ ইঞ্চি দূরত্বে বীজ বপন করে চারা উৎপাদন করা হয়। তারপর ২০-২২ দিনের চারা বীজ তলায় উৎপাদন করে মূল জমিতে রোপণ করতে হবে।

বীজ বপন বা চারা রোপণ পদ্ধতিঃ

বীজ সরাসরি ছিটিয়ে অথবা লাইন করে বপন করা যায়। লাইনের ক্ষেত্রে বেডের উভয় পাশে ৪ ইঞ্চি বাদ রেখে লম্বালম্বি জাতভেদে ১৬-১৮ ইঞ্চি দূরে দূরে লাইন করে একটু ঘনভাবে বীজ বপন করতে হবে। পরবর্তী সময় দুটি গাছের মধ্যে ১০-১২ ইঞ্চি ব্যবধান থাকে। বৃষ্টির মৌসুম শেষ না হলে এ পদ্ধতি ঝুকিপূর্ণ। আগাম মৌসুমে বৃহদাকার জাত চাষ করতে হলে চারা রোপণ উত্তম। চারার বয়স ৩০-৪০ দিন হলে চারা ১০ ইঞ্চি × ১৮ ইঞ্চি দূরত্বে রোপণ করা হয।  জমিতে রস না থাকলে ঝাঝরি দিয়ে হালকা সেচ দিতে হবে।

উল্লেখ্য ৩০ ডিগ্রী সে. তাপমাত্রার উপরে লেটুসের বীজ সহজে অংকুরিত হয় না। বোনার পূর্বে ভেজা বীজ ৪-৬ ডিগ্রী সে. তাপমাত্রায় ৩-৫ দিন রাখলে এ অসুবিধা দূর হয়। বর্তমানে বাংলাদেশে অতি সীমিত আকারে লেটুসের চাষ হয়। এদেশে ক্রিস্পহেড, বাটার হেড ও ঢিলে পাতা শ্রেণির লেটুস জন্মানো হয়।

তথ্যসূত্রঃ কৃষি প্রযুক্তি হাত বই (৬ষ্ঠ সংস্করণ), বারি, গাজীপুর

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০২১