পোকার আক্রমণের লক্ষণ:

[slider width=”100%” height=”100%” class=”” id=””]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/11/barley-aphid.jpeg[/slide]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/11/barleyaphid-2.jpg[/slide]
[/slider]

পিপিলিকার উপস্থিতি এ পোকার উপস্থিতিকে অনেক ক্ষেত্রে জানান দেয় । এ পোকা পাতা, গাছ ও কচি দানার রস চুষে খায়। এর আক্রমন বেশি হলে শুটি মোল্ড ছক্রাকের আক্রমন ঘটে এবং গাছ মরে যায় ।

আক্রমণের আগে করণীয়ঃ

১. আগাম বার্লি বপন করুন
২. উন্নত জাতের বার্লি বপন করুন ।

আক্রমণ হলে করণীয়ঃ

১. প্রাথমিক অবস্থায় হাত দিয়ে পিশে পোকা মেরে ফেলা
২. স্বজোড়ে পানি স্প্রে করা।
৩. পরভোজী পোকা যেমন : লেডিবার্ডবিটল লালন।
৪. ডিটারজেন্ট পানিতে মিশিয়ে স্প্রে করা
৫. প্রতি গাছে ৫০ টির বেশি পোকার আক্রমণ হলে কীটনাশক প্রয়োগ করা যেতে পারে। 
এ পোকার জন্য অনুমোদিত কীটনাশক নেই। তবে সরিষার জন্য অনুমোদিত কীটনাশকের কতিপয় নমূনা হলো ঃ

গ্রুপের নাম বানিজ্যিক নাম ও অনুমোদিত মাত্রা
থায়োমেথোক্সাম একতারা (এপি-৪২৮)/জাবাত (এপি-২৪১০) ২৫ wg @ ২.০ মিলি/১০ লিটার পানি হারে অথবা
ইমিডাক্লোপ্রিড বিডার ২০ এসএল (এপি-৮৩৮) @ ০.৫ মিলি/লিটার পানি হারে অথবা
ম্যালাথিয়ন ম্যালাটাফ (এপি-২৩৫) ৫৭ ইসি প্রতি লিটার পানিতে ২ মিলি হারে অথবা
ডাইমেথয়েট টাফগর ৪০ ইসি (এপি-২২৮) @ ২ মিলি./লিটার পানি হারে  অথবা
এসিফেট মিমিফেট ৭৫ এসপি (এপি-৮৩১) প্রতি লিটার পানিতে ১ গ্রাম হারে অথবা
ডায়াজিনন এমকোজিনন (এপি-৫৮৯)/ডায়াজল (এপি-৯৫৩) ৬০ ইসি প্রতি লি. পানিতে ১ মিলি হারে প্রয়োগ করা যেতে পারে


তথ্যসূত্রঃ বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি), গাজীপুর, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, ঢাকা এবং Farmers’ window

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ১৩, ২০১৬