পোকার আক্রমণের লক্ষণ:

[slider width=”100%” height=”100%” class=”” id=””]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/10/fad06s06.jpg[/slide]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/10/fad06s05.jpg[/slide]
[/slider]

এ পোকা রাতের বেলা চারা মাটি বরারবর গাছ কেটে দেয়। সকাল বেলা চারা মাটিতে পড়ে থাকতে দেখা যায় ।

সমন্বিত বালাই দমন ব্যবস্থাপনাঃ

আক্রমণের আগে করণীয়ঃ

* ক্ষেত পরিস্কার পরচ্ছন্ন রাখা ;
* ক্ষেতে ডাল পুতে পাখি বসার ব্যবস্থা করা ( বিঘা প্রতি ৮-১০ টি);
* উত্তমরুপে জমি চাষ দিয়ে পোকা পাখিদের খাবার সুযোগ করে দিন;
* নিয়মিত মাঠ পরিদর্শন করে আক্রমণের শুরুতেই ব্যবস্থা নিন।

আক্রমণ হলে করণীয়ঃ

১। সকাল বেলা কেটে ফেলা চারার আশে পাশে মাটি খুরে পোকা বের করে মেরে ফেলা;
২। কেরোসিন মিশ্রিত পানি সেচ দেয়া;
৩। রাতে ক্ষেতে মাঝে মাঝে আবর্জনা জড়ো করে রাখলে তার নিচে কীড়া এসে জমা হবে, সকালে সেগুলোকে মেরে ফেলা;
৪। সরিষার কাটুই পোকার জন্য অনুমোদিত কোন কীটনাশক নেই। তবে আলু এবং ভূট্টার কাটুই পোকার জন্য অনুমোদিত কীটনাশকগুলো হলো ঃ

গ্রুপের নাম বানিজ্যিক নাম ও ব্যবহার মাত্রা
ল্যামডা সাইহ্যালোথ্রিন ক্যারাটে(এপি-২৬৩)/রীভা(এপি-৫২০) ২.৫ ইসি বিঘা প্রতি ১০০ মিলি অথবা ফাইটার(এপি-৫০২)/জুবাস (এপি-৮৭৪)/টাইগার(এপি-১২৩৩)/সাইক্লোন(এপি-১২৮০) ২.৫ ইসি প্রতি লিটার পানিতে ১.৫ মিলি হারে অথবা
কারটাপ কেয়ার (এপি-৬৫৪) ৫০ এসপি বিঘা প্রতি ২০০ গ্রাম হারে অথবা
ক্লোরোপাইরিফস ডারসবান (এপি-৯৩)/ক্লাসিক (এপি-৩৪৫)/পাইরিফস (এপি-২৫৯)/হেমলক (এপি-১১৪৫) ২০ ইসি বিঘা প্রতি ১ লিটার হারে অথবা ভিটাবান (এপি-১১৪৯)/গোলা (এপি-১২৭১) প্রতি লি. পানিতে ৩ মিলি অথবা মর্টার (এপি-৬২০) ৪৮ ইসি বিঘা প্রতি ৪৬৫ মিলি হারে অথবা
ক্লোরোপাইরিফস+ সাইপারমেথ্রিন বাইপোলার (এপি-১০৫১)/সেতারা (এপি-২২৯৬) ৫৫ ইসি/হাইড্রো (এপি-১৩৪২)/আলকো (এপি-৩০০৭) ৫০৫ ইসি প্রতি লিটার পানিতে ২ মিলি হারে অথবা
ইমিডাক্লোপ্রিড ইমিডাক্লোর ১০ wp (এপি-১০০০) একর প্রতি ১ lb হারে


তথ্যসূত্রঃ বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি), গাজীপুর, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, ঢাকা ও Farmer’s window

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২১