বংশবিস্তারঃ

ফাটল বা ভিনিয়ার কলমের মাধ্যমে জোড় কলম করা যায়। আদিজোড় হিসেবে খিরনির চারা ব্যবহার করা যায়।

জমি নির্বাচনঃ

উঁচু ও মাঝারি উঁচু জমি আমড়া চাষের উপযোগী। বর্ষার পানি উঠে এবং বৃষ্টির পানি জমে এরকম জমি উপযুক্ত নয়।

চারা লাগানোর সময়ঃ

জৈষ্ঠ্য থেকে ভাদ্র মাস (জুন-আগস্ট) আমড়ার চারা রোপনের উপযুক্ত সময়।

রোপণ দূরত্বঃ

চারা থেকে চারার দূরত্ব ১৫ হাত × ১৫ হাত

রোপণ পদ্ধতিঃ

·       চারা রোপণের জন্য গর্তের আকারঃ সোয়া ২ হাত × সোয়া ২ হাত × সোয়া ২ হাত

·       গর্তে ২৫ কেজি গোবর, ৩০০ গ্রাম টিএসপি, ২৫০ গ্রাম পটাশ ও ২০০ গ্রাম জিপসাম সার গর্তের মাটির সঙ্গে মিশাতে হবে। এভাবে ১৫-২০ দিন গর্ত ভরাট করে রেখে দিতে হবে।

·       গর্তে চারাটি সোজা করে লাগিয়ে গোড়া হাত দিয়ে শক্ত করে দিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যাতে জোড়াস্থান মাটি থেকে ৬ ইঞ্চি উপরে থাকে।

·       বিকেল বেলায় চারা রোপণের পর পানি সেচ দিতে হবে ও খাচার ব্যবস্থা করতে হবে।

কয়েকটি চিত্রের মাধ্যমে দেখানো হলোঃ

প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সংগ্রহ, সঠিকভাবে মাপ দিতে হবে ২ ফুট × ২ ফুট × ১.৫ ফুট গর্তে গোবর সার প্রয়োগ, গর্তে রাসায়নিক সার প্রয়োগ করে গর্ত ভরাট করা ১৫ দিন পর পুনরায় গর্ত করে চারা লাগানো চারা লাগানোর পর মাটি চাপা, খুটিঁ ও সেচ দেয়া

Sticking Transplant Watering

তথ্যসূত্রঃ মুন্সী রাশীদ আহ্‌মদ, প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, এইচআরসি, বিএআরআই, গাজীপুর

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারী ১৯, ২০২১