রোগ আক্রমণের লক্ষণ:

এ রোগের আক্রমনে পাতায় ও বীজকান্ডে পানি ভেজা তামাটে, বাদামি বা হালকা বেগুনি রংয়ের দাগ দেখা যায়।আক্রান্ত পাতা উপর থেকে মরে আসে। এক সময় গাছ ভেঙ্গে যায়। একধরণের ছত্রাকের আক্রমণে এ রোগ হয়।

[slider width=”100%” height=”100%” class=”” id=””]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/12/onion-bulbrot-1.jpg[/slide]
[/slider]

আক্রমণের আগে করণীয়ঃ

১. অতিরিক্ত ঘন করে পেঁয়াজ না লাগানো;
২. সুষম সার প্রয়োগ ও পরিচর্যা করা ।
৩. একই জমিতে বার বার পেঁয়াজ-রসুন চাষ না করা;
৪. বিকল্প পোষক যেমন: আগাছা পরিস্কার রাখা

৫. আক্রান্ত গাছ থেকে বীজ সংগ্রহ করবেন না

আক্রমণ হলে করণীয়ঃ

# আক্রান্ত পাতা ও বীজকান্ড ছাটাই করে ধ্বংস করা।
# প্রোপিকোনাজল গ্রুপের ছত্রাক নাশক যেমন: টিল্ট ১০ লি. পানিতে ৫ মি.লি. মিশিয়ে ১২ দিন পরপর ২ বার স্প্রে করা।
#আদ্র ও উষ্ণ আবহাওয়া বিরাজ করলে রুটিন স্প্রে ছাড়াও ঘন ঘন স্প্রে করতে হবে
# রোভরাল, ডাইথেন এম ৪৫, রিডোমিল গোল্ড এমজেড ইত্যাদি পর্যায়ক্রমে পরিবর্তন করে ব্যবহার করলে ভাল ফল পাওয়া যায়।

তথ্যসূত্রঃ ১। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এবং ২। Farmer’s Window

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২১