রোগের লক্ষণ: 

  • এ রোগ হলে গাছের পাতা হলদে হয়ে শুকিয়ে যায়, ধীরে ধীরে গাছ ঢলে পড়ে এবং মারা যায়।

[slider width=”100%” height=”100%” class=”” id=””]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/11/wilt-2.jpeg[/slide]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/11/bacterial-wilting.jpeg[/slide]
[slide type=”image” link=”” linktarget=”_self” lightbox=”yes”]http://agrivisionbd.com/wp-content/uploads/2015/11/chilliwilting-2.jpg[/slide]
[/slider]

রোগ আক্রমণের পূর্বে করণীয়ঃ

১। চাষের পূর্বে জমিতে শতাংশ প্রতি ১ কেজি ডলোচুন প্রয়োগ করে জমি তৈরী করুন
২। প্রতি লিটার পানিতে ৪ গ্রাম ট্রাইকোডারমা ভিরিডি মিশিয়ে ১৫-২০ মিনিট ধরে চারা শোধন করে নিন।
৩. আক্রান্ত জমি থেকে বীজ সংগ্রহ করা যাবে না;

৪. শস্য পর্যায় অনুসরণ করতে হবে।

রোগ আক্রমণের পর করণীয়ঃ

  • আক্রান্ত পরিত্যক্ত অংশ সংগ্রহ করে নষ্ট করা ।
  • রোগ দেখা দিলে চ্যাম্পিয়ন ২ গ্রাম / লি. হারে পানিতে মিশিয়ে স্প্রে করা।

তথ্যসূত্রঃ ১। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এবং ২। Farmer’s Window

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২১